উত্তরাধিকার

শেষবার যখন মরেছিলাম, প্রিয়তমা, আমি মরি
ততবার, যতবার ছেড়ে আসি তোমাকে,
যদিও মাত্র ঘণ্টা খানেক হলো আমি তুমিহীন,
—কিন্তু প্রেমিকের প্রতিটা ঘণ্টা যেন অনন্তকাল—
আমার এখনো মনে পড়ছে, আমি
কিছু একটা বলেছিলাম, দিয়েছিলাম কিছু একটা;
যদিও আমি মরে যাব, হয়তো আমিই হব
আমার মৃত্যুদণ্ড নির্বাহক, আমিই হব আমার উত্তরাধিকার।

আমি নিজেকে বলতে শুনেছি, “ তাঁকে সংক্ষেপে বলো,
আমার মৃত্যুর জন্যে আমি নই,
সেই দায়ী,” আর যখন অনুভব করেছিলাম নিজের মৃত্যু,
আমি নিজেকে প্রস্তাব করেছিলাম, তাঁর কাছে আমার হৃদপিণ্ড পাঠাতে,
কিন্তু হায়! সেখানে পাইনি কিছুই;
যখন চিড়ে দেখলাম হৃদপিণ্ড থাকার জায়গাটা,
আমি আবারো মরলাম, যখন বুঝলাম জীবনে আমিই
বিশ্বাসযোগ্য ছিলাম, আর শেষ মুহূর্ত গুলোয় তোমাকে ঠকানো উচিত।

হৃদপিণ্ডের মতই কিছু একটা পেয়েছিলাম সেখানে,
একই রঙ, কিন্তু গোল নয়, কোণাকৃতি;
এটা ছিল না-ভালো, না-খারাপ,
কোন কিছুর সাথে মিল নেই, ছিল কিছু প্রত্যঙ্গ,
যেন শিল্পের বানানো সুন্দর একটা হৃদপিণ্ড,
আমি নিজ হৃদপিণ্ডের বদলে এটাকেই পাঠাতে চেয়েছিলাম,
কিন্তু ওহ! কেউই পারবেনা এটাকে ধারণ করতে, কারণ এই হৃদপিণ্ডের স্বত্বাধিকার শুধু তোমারই।

তর্জমা
এপ্রিল ১২, ২০১৬
মূলঃ দ্যা লেগাসি—জন ডান

Comments

comments

310 views

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *